বেনাপোলে সাড়ে বার কোটি টাকা মূল্যের আড়াই টন ভায়াগ্রার সর্ববৃহৎ চালান আটক

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
কাস্টম হাউস, বেনাপোল
যশোর

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

বেনাপোলে সাড়ে বার কোটি টাকা মূল্যের আড়াই টন ভায়াগ্রার সর্ববৃহৎ চালান আটক

ভায়াগ্রা পাউডারের বৃহত্তম চালান বেনাপোলে আটক হয়েছে। বাংলাদেশ ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের পরীক্ষা প্রতিবেদনে এটি Sildenafil Citrate (ভায়াগ্রা) প্রমাণিত। গত মাসে একইভাবে ২০০ কেজি পাউডার ভায়াগ্রা আটক করেছিল বেনাপোল কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। এবারের চালান আকারে বিশাল, বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম। এত বিপুল পরিমাণে ভয়ানক ক্ষতিকারক ভায়াগ্রা বাংলাদেশে প্রবেশ গভীর উদ্বেগের। একটি সংঘবদ্ধ চক্র বাংলাদেশকে ভায়াগ্রা পাউডার চোরাচালানের রুট হিসেবে ব্যবহার করছে কি না খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে বিজিবিও উদ্বিগ্ন এবং বিজিবির মাধ্যমে বিএসএফ থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। অন্যদিকে ভায়াগ্রার এ চালানটি তোড়জোড় করে খালাসের জন্য একটি শক্তিশালী মহল অপপ্রভাব খাটাতে চেষ্টা করে যাচ্ছে। গোপন সংবাদদাতার নিরাপত্তাসহ সার্বিক বিষয়েও কাস্টম হাউস উদ্বিগ্ন।

গোপন সংবাদ ঃ WCOথেকে বিশ্বব্যাপী মাদক পাচার বিষয়ক সতর্কবার্তার সূত্রে গোপন সংবাদদাতা নিয়োগ করা হয়। ভারত হতে মিথ্যা ঘোষণায় বৈধ পণ্যের আড়ালে ভায়াগ্রা জাতীয় মাদক বেনাপোল বন্দরে প্রবেশ করবে এমন আগাম গোপন সংবাদ কয়েক মাস আগেই গোপন সংবাদদাতার (paid source) সূত্রে পাওয়া যায়। ফলে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করা হয়। কেমিক্যাল জাতীয় পণ্যচালানে রয়েছে বিশেষ নজরদারি।

আটক চালানের বিবরণ ঃ
আমদানিকারকের নাম ও ঠিকানা-মেসার্স বায়েজিদ এন্টারপ্রাইজ, ৪৭/সি মিটফোর্ড রোড, ঢাকা।
রপ্তানিকারকের নাম ও ঠিকানা-আই বি ট্রেডার্স, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত
সিএন্ডএফ এজেন্ট ও ঠিকানা-সাইনী শিপিং সার্ভিসেস, বেনাপোল
এল সি নং ও তারিখ-০০০০৯৪৬১৯০১০৩৪২, তারিখ ঃ ২১/০৫/১৯
মেনিফেস্ট নং ও তারিখ-১৯১৯৩/১, তারিখঃ ২৬/০৫/১৯
বি/ ই নং ও তারিখ-সি-৩৬৪৯৬, ২৯/০৫/১৯
ঘোষিত পণ্য-সোডিয়াম স্টার্চ গ্লাইকোলেট
ঘোষিত ও পরীক্ষায় প্রাপ্ত পরিমাণ-২৫০০ কেজি
ঘোষিত এইচএসকোড-৩৫০৫.১০.০০
প্রকৃত এইচ এস কোড-২৯৩৫.৯০.০০
ঘোষিত মূল্য-৩৫০০ মাঃ ডলার
প্রকৃত মূল্য-১২,৫০,০০,০০০ টাকা (বার কোটি পঞ্চাশ লক্ষ টাকা)

অপচেষ্টার ধরন ঃ ঘোষণা দেওয়া হয় সোডিয়াম স্টার্চ গ্লাইকোলেট। রাসায়নিক পরীক্ষায় পাওয়া যায় ভায়াগ্রা।

আমদানি দলিলাদি যাচাই ঃ মিথ্যা ঘোষণার আগাম গোপন সংবাদ থাকায় আমদানিকারকের দাখিলকৃত আমদানি দলিলাদি অতি সতর্কতার সাথে যাচাই করা হয়। আমদানিকারক কোন ঔষধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান না হওয়া সত্তে¡ও ঔষধের কাঁচামাল সোডিয়াম স্টার্চ গ্লাইকোলেট আমদানির ঘোষণায় সন্দেহ কিছুটা ঘনীভ‚ত হয়।

পণ্যের কায়িক পরীক্ষণ ঃ সাদা পাউডার জাতীয় পণ্য প্রাপ্তি। ঘোষিত পরিমাণের কোন গরমিল পাওয়া যায়নি।

রমন স্পেক্ট্রোমিটারে পরীক্ষণঃ এ দপ্তরের কেমিক্যাল ল্যাবে রক্ষিত রমন স্পেক্ট্রোমিটারে (WCO থেকে অনুদানপ্রাপ্ত) এ পণ্যের প্রতিনিধিত্বশীল নমূনার রাসায়নিক পরীক্ষা করা হয়। আকস্মিকভাবে এ মেশিন ভায়াগ্রা (Sildenafil Citrate) প্রদর্শন করে । বারবার একই ফলাফল। ফলে মিথ্যা ঘোষণা প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত।

বন্দরের নজরদারি বাড়ানোর তাগিদ ঃ রমন স্পেক্ট্রোমিটারে ভায়াগ্রা হিসেবে সনাক্ত হওয়ায় পণ্য যাতে কোনভাবে পাচার হতে না পারে সেজন্য বন্